Welcome to Custom, House Chattogram

দেশ বিভাগের আগে ব্রিটিশ পিরিয়ডে এদেশে কোন কাস্টমস কালেক্টর (বর্তমান কমিশনার) পদস্থ ছিল না । কোলকাতা কাস্টম হাউসে কালেক্টর পদস্থ থাকতো । কোলকাতা কাস্টমস কালেক্টর এর নিয়ন্ত্রনে ছিল চট্রগ্রাম কাস্টম হাউস, এর দায়িতে থাকতো একজন ডেপুটি কালেক্টর । তখন এদেশের বড় কাস্টম হাউস তথা Chittagong Custom House পদস্থ থাকত একজন ডেপুটি কালেক্টর তিনি চালাতেন এ দেশের কাস্টমস কার্মকান্ড ।

১৯৪৭ সালে দেশ বিভাগ হল । বিভাগের সময় কোলকাতা কাস্টমস কালেক্টর ছিলেন জনাব বি,সি,দে । ১৪ আগস্ট ১৯৪৭ পাকিস্তান সৃষ্টি হল । ১৮/৮/১৯৪৭ কাস্টম হাউস, চট্রগ্রাম কালেক্টর পদস্থ হলেন জনাব এ, ই, রাইট । পাকিস্তান হওয়ার পর Chittagong Custom House এর কালেক্টার পদস্থ করা হল । তারা বেশির ভাগ ছিলেন পাকিস্তানি যেমন- সরব জনাব এস আলম, এস এম আব্বাস, সাজিদ আলী খান, এ হামিদ, নুরুল ইসলাম, বরিশাল (ইনি বাংলাদেশি পরে বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর হন, বাড়ী বরিশাল), এস এম এলাহি (গজবে এলাহি ভদ্রলোক খুব রাগী ছিলেন তাই সবাই এ উপাধি দিয়েছিল ), মোঃ ওসমান, একেএম ওয়ালিউল ইসলাম, । আপনাদের জানিয়ে রাখি বরেন্য শিল্পী রুনা লায়লার বাবা ছিলেন পাকিস্তান কাস্টমস এর সহকারী কালেক্টর ।

১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধকালীন পরবতি দেশ স্বাধিন হলো । পিও অর্ডার ৭৬/৭২ এর গঠিত হলজাতীয় রাজস্ব বোড তার অধীনে কাস্টমস ডিপার্টমেন্ট। এ দেশে কালেক্টার হলো সরব জনাব এস এম জামান, তবারক আলি, এ এস রশিদ, শাহ মোঃ আবুল হোসাইন, বরিশাল (বিএনপি আমলে অর্থ প্রতিমন্ত্রী) এস এম আকরাম (নারায়ণগঞ্জ সাবেক আওয়ামী লীগ সাংসদ) আব্দুল লতিফ শিকদার, বরিশাল (স্যারের কাস্টম এক্ট বইটি খুবি ভাল), মাহাবুবুর রহমান, কুমিল্লা, খাজা গোলাম সারওয়ার, সিরাজগঞ্জ,জনাব মোঃ নাসির উদ্দিন আহমেদ, মনযুর মান্নান, বরিশাল (আমার কাস্টমস এর দীক্ষাগুরু শ্রদ্ধেয় স্যার), আজিজুর রহমান (রোড এক্সিডেন্টে মারা যান) । কালেক্টর এর যুগ শেষ ।

১/৭/৯৫ কালেক্টর পদে চেঞ্জ হয়ে কমিশনার, শুরু হলো কমিশনার এর যুগ, ১ম কমিশনার আজিজুররহমান (শেষ কালেক্টর একি ব্যক্তি) পরে একে একে অন্যরা ।

১৯৫০ সালের ১১ ডিসেম্বর ব্রিটিশ বাণিজ্যিক জাহাজ’’ সিটি অব লিয়নস” খুলনা জেলার চালনানামক স্থানে এংকোর ড্রপ করে গোড়াপত্তন করলো চালনা (খুলনা শহর থেকে ২২ মাইল দক্ষিনে) এংকোরেজ বা চালনা বন্দরের । এই নতুন বন্দর পথ চলতে শুরু করলো । পরে এর নাম হলো চালনা বন্দর । নদীর নাব্যতার কারনে পরে এটি আরো ভাটিতে মংলায় নিয়ে যাওয়া হয় । ৮০ দশকে এর নামকরণ কারা হয় মংলাবন্দর । বন্দর কর্মকান্ডএর সাথে সৃষ্টি হয়ে হলো চালনা কাস্টম, এখন যা মোংলা কাস্টম ।